এক নজরে ভূমি ব্যবস্থাপনায় লক্ষ্মীপুর জেলা

জেলা প্রশাসনের অনেকগুলো গুরুত্বপূর্ণ কাজের মধ্যে ভূমি ব্যবস্থাপনা অন্যতম। জেলার ভূমি ও ভূমি-রাজস্ব ব্যবস্থাপনার সার্বিক দায়িত্ব কালেক্টর তথা জেলা প্রশাসক এর উপর ন্যস্ত। জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে একজন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ভূমি ব্যস্থাপনার সার্বিক বিষয়ে জেলা প্রশাসককে সহায়তা করেন। তাছাড়া উপজেলা পর্যায়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি)গণ স্বীয় অধিক্ষেত্রে ভূমি ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব পালন করেন। ভূমি সংক্রান্ত সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছানোর লক্ষে সরকার পর্যায়ক্রমে সকল ইউনিয়নে একটি করে ভূমি অফিস স্থাপন করছে। লক্ষ্মীপুরে ৫টি উপজেলা ভূমি অফিস এবং ৪৬টি ইউনিয়ন ভূমি অফিস জনগণকে ভূমি সংক্রান্ত সেবা দিয়ে যাচ্ছে।
ইউনিয়ন ভূমি অফিসগুলো পূর্বে তহশিল অফিস হিসেবে পরিচিত ছিলো। ইউনিয়ন ভূমি অফিসের বহুবিধ কাজের মধ্যে দুটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ হলো ভূমি উন্নয়ন কর আদায় এবং নামজারি-জমাখারিজ মামলার সরেজমিন তদন্তপূর্বক প্রস্তাব প্রেরণ। ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তার প্রতিবেদনের আলোকে রেকর্ড যাচাইপূর্বক সহকারী কমিশনার (ভূমি) নামজারি নথিমূলে রেকর্ড হালনাগাদ করেন। সরকারি-বেসরকারি সংস্থাসহ সকল ব্যক্তি-মালিকানাধীন ভূমির যথাযথ ব্যবস্থাপনা নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে রেকর্ড হালকরণ একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ।ভূমি উন্নয়ন কর আদায় ও রেকর্ড হালকরণের পাশাপাশি ভূমি প্রশাসনের অন্যান্য কাজের মধ্যে রয়েছেঃ

১। খাস জমি রক্ষণাবেক্ষণ, চিহ্নিতকরণও বন্দোবস্ত প্রদান
২। অর্পিত সম্পত্তি ব্যবস্থাপনা
৩। বাজার পেরিফেরি নির্ধারণ, হাট-বজারের চান্দিনা ভিটির একসনা বন্দোবস্ত প্রদান
৪। জলমহাল, বালুমহালসহ অন্যান্য সায়রাত মহাল ব্যবস্থাপনা
৫। রেকর্ডের করণিক ভুল সংশোধন
৬।  রেন্ট সার্টিফিকেট মামলা নিষ্পত্তি
৭। দেওয়ানি মামলায় সরকার পক্ষে প্রতিনিধিত্ব করণ
৮। খাস জমিসহ বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানের জমি হতে অবৈধ দখল উচ্ছেদ
৯। নদী সিকস্থি ও পয়স্থি জমির ব্যবস্থাপনা
১০। ভূমিহীনদের পুনর্বাসনের নিমিত্ত আদর্শগ্রাম প্রকল্প/আশ্রয়ণ প্রকল্প বাস্তবায়ন
১১। পিও ৯৬ ও ৯৮ এর  আলোকে সিলিং বর্হিভূত জমি উদ্ধার ইত্যাদি।